শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০২:০৯ অপরাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
অগ্নিদগ্ধ ছেলেকে দেখতে সীতাকুণ্ডে যেতে পারছেন না বাহুবলের সেফু মিয়া মাধবপুরে বঙ্গমাতা বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ভোধন মাধবপুরে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ লাইন টেকনিশিয়ানের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতর অভিযোগ মাধবপুরে বৈকুন্ঠপুর চা শ্রমিক পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ মাধবপুরে দুই সাংবাদিক কে চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা নেপাল ইন্টারন্যাশনাল আইকনিক এ্যাওয়ার্ড পেলেন ১১ বাংলাদেশী মাধবপুরে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের পরিচিতি ও আলোচনা সভা পুলিশের সোর্স কে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা পিএইচ.ডি. ডিগ্রী অর্জন করায় মুহাম্মদ আশরাফুল আলম হেলালকে সংবর্ধনা
নোটিশ ::
দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী পত্রিকার সকল প্রতিনিধি ও গ্রাহকদের কে আমাদের ফেইজবুক ফেইজ  এ লাইক দিয়া আমাদের সাথে সংযুক্ত থাকার জন‌্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হল। আমাদের ফেইজবুক ফেইজ: https://www.facebook.com/habiganjerbani  অনুরুধ ক্রমে: নির্বাহী সম্পাদক,দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী।

আজমিরীগঞ্জে নিষিদ্ধ জালে বিলুপ্তির পথে হাওড়ের ছোট মাছ ও জলজ প্রাণী! 

এনামুল হক মিলাদ (আজমিরীগঞ্জ) / ২৭১ বার
আপডেটের সময় : শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জের বিভিন্ন হাট-বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ কারেন্ট ও ভীম জাল।  প্রকাশ্যে কারেন্ট ও ভীম  জাল বিক্রি হলেও মৎস্য অধিদপ্তর রয়েছে প্রায় নিশ্চুপ। কতৃর্পক্ষকে এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নিতে দেখা যাচ্ছে না।
সরেজমিনে উপজেলার আজমিরীগঞ্জ সদর, পাহাড়পুর, কাকাইলছেওসহ বিভিন্ন হাটে দেখা যায়, কারেন্ট  ও ভীম জালসহ নিষিদ্ধ বিভিন্ন জালের বিক্রির মহোৎসব চলছে। সরকার ৪ দশমিক ৫ সেন্টিমিটার বা তদপেক্ষা কম ব্যস বা দৈঘ্র্যের ফাঁস জালের (কারেন্ট জাল)  এবং চট (ভীম) জাল নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেও তা কোনো কাজেই আসছে না।
নিয়ম অনুযায়ী এ আইন অমান্যকারীকে ১০০০ টাকা জরিমানা বা ৬ মাসের জেল অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করার ঘোষণা রয়েছে।
কিন্তু এ সব আইনকে বৃদ্ধাঙুলি দেখিয়ে একশ্রেণির অসাধু  জাল ব্যবসায়ী বিভিন্ন বাজারে বিভিন্ন কৌশলে বিক্রি করছেন এই নিষিদ্ধ জাল!  নিষিদ্ধ এই জাল সহজলভ্য হওয়া মৎস্য শিকারীরা অবাধে কারেন্ট ও ভীম  জাল ব্যবহার করে শিকার করছে হাওড়ের দেশী প্রজাতির ছোট মাছ, পোনা, কুচিয়াসহ প্রাকৃতিক জলজ প্রাণী।
এই ধারা অব্যাহত থাকলে বিলুপ্ত হয়ে যাবে এক সময়ের প্রাকৃতিক মৎস্য ভান্ডার খ্যাত আজমিরীগঞ্জের বৃহত্তম হাওড় অঞ্চলের অনেক  প্রজাতির মিঠা পানির মাছ ৷ এমনটি মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা ৷
এ ব্যপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রাশেদ্ উজ জামান বলেন, আমি বিভিন্ন বাজারে এবং হাওড়ে অভিযান পরিচালনা করছি , ম্যাজিস্ট্রেট না থাকার কারণ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করতে পারছিনা। তবে, আমরা ম্যাজিস্ট্রেটের জন্য রিকুইজিশন করেছি। আশা করছি ২/৩ দিনের ভিতরে অভিযানে নামতে পারবো ৷


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com