শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০১:১২ পূর্বাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
অগ্নিদগ্ধ ছেলেকে দেখতে সীতাকুণ্ডে যেতে পারছেন না বাহুবলের সেফু মিয়া মাধবপুরে বঙ্গমাতা বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ভোধন মাধবপুরে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ লাইন টেকনিশিয়ানের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতর অভিযোগ মাধবপুরে বৈকুন্ঠপুর চা শ্রমিক পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ মাধবপুরে দুই সাংবাদিক কে চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা নেপাল ইন্টারন্যাশনাল আইকনিক এ্যাওয়ার্ড পেলেন ১১ বাংলাদেশী মাধবপুরে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের পরিচিতি ও আলোচনা সভা পুলিশের সোর্স কে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা পিএইচ.ডি. ডিগ্রী অর্জন করায় মুহাম্মদ আশরাফুল আলম হেলালকে সংবর্ধনা
নোটিশ ::
দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী পত্রিকার সকল প্রতিনিধি ও গ্রাহকদের কে আমাদের ফেইজবুক ফেইজ  এ লাইক দিয়া আমাদের সাথে সংযুক্ত থাকার জন‌্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হল। আমাদের ফেইজবুক ফেইজ: https://www.facebook.com/habiganjerbani  অনুরুধ ক্রমে:  সম্পাদক(Online),দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী।

একমাত্র ছেলেকে আত্মহত্যার প্ররোচনা, মেয়েকে অপহরণের চেষ্টা, বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে অসহায় মা

রিপোর্টার / ৪৭৩ বার
আপডেটের সময় : সোমবার, ৮ জুন, ২০২০

মাধবপুর প্রতিনিধি :হবিগঞ্জের মাধবপুর বাজার থেকে আওলিয়া বেগম নামে এক নারীকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (৮ জুন) বিকেলে কাজ করে বাড়ি ফিরার সময় বিকেল ৫ টার দিকে একটি সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার হরিপুরের মফিজ উদ্দিন ও তার স্ত্রী আসমা বেগম সহ ৩/৪ জন যুবক মিলে আওলিয়া বেগমকে অপহরণের চেষ্টা করে। এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন চলে আসলে তারা পালিয়ে যায়। আওলিয়া বেগমের চাচাতো ভাই শাজাহান মিয়া জানায়, আওলিয়া বেগম সহ তার পরিবারের লোকজনকে একটি আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি ধামকি দিয়া আসছে একটি পক্ষ। এব্যাপারে মাধবপুর থানায় মামলা করতে গেলে,থানার গেইট থেকে বলা হয় লকডাউন চলছে, আগামীকাল আসবেন । এর আগে আওলিয়া বেগমের একমাত্র ছোট ভাই ঐ সব লোকজনের হুমকি ধামকি ও হয়রানি সইতে না পেড়ে আত্মহত্যা করে। সে আরও জানায়, তার চাচা আজদু মিয়া মারা গেছে ১৬/১৭ বছর আগে। একমাত্র ছেলে আল আমিন এর বয়স তখন মাত্র ৩/৪ বছর। ৮ বোনের ১ ভাই। ছেলে বড় হয়ে সংসারের হাল ধরবেন এই আশায় কখনো ভিক্ষা করে আবার কখনো মানুষের বাড়িতে কাজ করে খেয়ে না খেয়ে মাধবপুর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের গোয়াসনগর গ্রামের স্বামীর ভিটেমাটি আঁকড়ে ধরে পড়ে ছিলেন রাহেলা বেগম। কিন্তু তার এই স্বামীর ভিটেমাটি আঁকড়ে ধরে পড়ে থাকা পছন্দ হয়নি স্বামীর চাচাতো ভাই দুদ মিয়া ও সৎ ভাই সামসু মিয়ার। আজদু মিয়ার মৃত্যুর কিছুদিন পর থেকেই তার সম্পত্তি দখলের জন্য বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে আসছিল।পিতৃহীন ছোট্ট আল আমিন এসব দেখতে দেখতে বড় হয়েছে। দুই চাচা ও চাচাতো বোনদের এসব ব্যবহার তাকে খুব কষ্ট দিত। ঝগড়াঝাটি সে পছন্দ করতো না তাই সবসময় তা এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতো। কিন্তু তার এই এড়িয়ে যাওয়াকে দুর্বলতা ভেবে আরও বেশি বেশি ঝগড়াঝাটি করার চেষ্টা শুরু করে তার চাচারা। এক পর্যায়ে মিথ্যা মামলায় দিয়ে তাকে জেলে পাঠানো হয়। গরীব অসহায় আল আমিন এসব নির্যাতন সইতে না পেড়ে গত ১৬ ই এপ্রিল সন্ধ্যায় একটি সুইসাইড নোট পকেটে রেখে কিটনাশক পান করে আত্মহত্যা করে। মৃত্যুর আগে নিজ হতে লেখা ঐ চিঠিতে আল আমিন স্পষ্ট করে তার আত্মহত্যার করান উল্লেখ করে যায়। এব্যাপারে আল আমিনের মা বাদী হয়ে মাধবপুর ১৯ এপ্রিল মাধবপুর থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে আট জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন। কিন্তু টাকা পয়সা খরচ করতে না পারায় আজ অবধি এই মামলার কোন অগ্রগতি নেই। প্রতিপক্ষ টাকা পয়সা খরচ করে মামলার ফাইনাল রিপোর্ট নেওয়ার চেষ্টা করছে বলে তারা অভিযোগ করে। এহেন পরিস্থিতিতে একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে পাগলপ্রায় বিধবা রাহেলা বেগম মানুষের দ্বারে দ্বারে কেঁদে ফিরছে পরিবারের নিরাপত্তা ও ন্যায় বিচারের আশায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com