মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৬:২৯ অপরাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
অগ্নিদগ্ধ ছেলেকে দেখতে সীতাকুণ্ডে যেতে পারছেন না বাহুবলের সেফু মিয়া মাধবপুরে বঙ্গমাতা বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ভোধন মাধবপুরে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ লাইন টেকনিশিয়ানের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতর অভিযোগ মাধবপুরে বৈকুন্ঠপুর চা শ্রমিক পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ মাধবপুরে দুই সাংবাদিক কে চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা নেপাল ইন্টারন্যাশনাল আইকনিক এ্যাওয়ার্ড পেলেন ১১ বাংলাদেশী মাধবপুরে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের পরিচিতি ও আলোচনা সভা পুলিশের সোর্স কে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা পিএইচ.ডি. ডিগ্রী অর্জন করায় মুহাম্মদ আশরাফুল আলম হেলালকে সংবর্ধনা
নোটিশ ::
দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী পত্রিকার সকল প্রতিনিধি ও গ্রাহকদের কে আমাদের ফেইজবুক ফেইজ  এ লাইক দিয়া আমাদের সাথে সংযুক্ত থাকার জন‌্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হল। আমাদের ফেইজবুক ফেইজ: https://www.facebook.com/habiganjerbani  অনুরুধ ক্রমে: নির্বাহী সম্পাদক,দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী।

জলাবদ্ধতা মুক্ত শহর গড়তে সর্বক্ষণ মেয়রের উপস্থিতিতে কাজ করছে দুইটি এক্সেভেটর

রিপোর্টার / ২৯৯ বার
আপডেটের সময় : বুধবার, ৩ জুন, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ জলাবদ্ধতা হবিগঞ্জ শহরের প্রধান সমস্যা। দীর্ঘদিনের এই সমস্যাটি বর্ষা মৌসুমে  আরও প্রকোপ আকার ধারণ করে। অনুন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থা, অপরিকল্পিত নগরায়ন ও পৌরবাসীর অসচেতনতার ফলে বর্ষা মৌসুমে পৌর কর্তৃপক্ষ জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য দিশেহারে  হয়ে পড়েন। বর্তমান পৌর মেয়র মোঃ মিজানুর রহমান মিজান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই এই বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্বের সাথে দেখছেন। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে ড্রেন পরিস্কার পরিচ্ছতা কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। রাস্তায় রাস্তায় স্থাপন করেছেন ডাস্টবিন।  দীর্ঘদিনের জমে থাকা  ময়লা আবর্জনা ও অপর্যাপ্ত ড্রেনের কারণে যে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় তা থেকে পৌরবাসীকে মুক্ত করতে পুরাতন খোয়াই নদী ও একাধিক খাল খনন কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তিনি। গতকাল শহরের অনন্তপুর পুরাতন খোয়াই নদী ও আনোয়ার পুর বড় ড্রেন খনন কার্যক্রম তদারকির সময় মেয়র মিজান বলেন, দীর্ঘদিন আমাদের পৌর নাগরিকবৃন্দ অবহেলিত ছিলেন। লোক দেখানো উন্নয়ন কর্মকান্ড ছাড়া জলাবদ্ধতা নিরসনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি প্রায় ১৫ বছর। অপরিকল্পিত ভাবে রাস্তা উঁচু করা জলাবদ্ধতার কোনো সমাধান নয়, এতে জলাবদ্ধতা আরও বেশি হয় । আমি ১০ মাস পূর্বে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই প্রতিটি অচল ড্রেন সচল করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সহযোগীতায় প্রধান সড়কের কোর্ট মসজিদ ও সার্কিট হাউজের সামনে কালভার্ট নির্মাণ কাজ চলছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে এই দুইটি কালভার্ট খুবই গুরুত্বপূর্ণ যা ইতিপূর্বে কারও নজরে আসেনি। এখন ভারী বৃষ্টি হলেও পানি বেশি সময় জমে থাকে না । আপনারা আরও সচেতন হউন, ডাস্টবিন ব্যবহার করুন,  ড্রেনে ময়লা ফেলা বন্ধ করুন। আমি আপনাদের একটি জলাবদ্ধতা মুক্ত শহর উপহার দিবো ইনশাল্লাহ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com