মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
অগ্নিদগ্ধ ছেলেকে দেখতে সীতাকুণ্ডে যেতে পারছেন না বাহুবলের সেফু মিয়া মাধবপুরে বঙ্গমাতা বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্ভোধন মাধবপুরে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত হবিগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ লাইন টেকনিশিয়ানের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতর অভিযোগ মাধবপুরে বৈকুন্ঠপুর চা শ্রমিক পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ মাধবপুরে দুই সাংবাদিক কে চাঁদাবাজির মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা নেপাল ইন্টারন্যাশনাল আইকনিক এ্যাওয়ার্ড পেলেন ১১ বাংলাদেশী মাধবপুরে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের পরিচিতি ও আলোচনা সভা পুলিশের সোর্স কে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা পিএইচ.ডি. ডিগ্রী অর্জন করায় মুহাম্মদ আশরাফুল আলম হেলালকে সংবর্ধনা
নোটিশ ::
দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী পত্রিকার সকল প্রতিনিধি ও গ্রাহকদের কে আমাদের ফেইজবুক ফেইজ  এ লাইক দিয়া আমাদের সাথে সংযুক্ত থাকার জন‌্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হল। আমাদের ফেইজবুক ফেইজ: https://www.facebook.com/habiganjerbani  অনুরুধ ক্রমে: নির্বাহী সম্পাদক,দৈনিক হবিগঞ্জের বাণী।

নবীগঞ্জে সিএনজি ভাড়া অতিরিক্ত নিলেও মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি,কিছু বল্লে দে হুমকি

রিপোর্টার / ৩৫৫ বার
আপডেটের সময় : রবিবার, ৭ জুন, ২০২০

ইকবাল হোসেন তালুকদার, নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
বিশ্বব্যাপী নোভেল করোনা ভাইরাসে মানুষজন যখন দিশেহারা। তখন সরকারের বেঁধে দেওয়া নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে নবীগঞ্জে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বীরদর্পে সিএনজিতে পর্দা টানিয়ে শিশুসহ ৭ থেকে ৮ জন করে যাত্রী নেয়া আনা করছে সিএনজি চালকরা।
পাশাপাশি বসে নেই টমটমও সাথে রয়েছে চালকদের নৈরাজ্য ও যাত্রীদের অহেতুক চরম হয়রানি দিন দিনই বেড়েই চলেছে। তিনজনের জায়গায় অধিক যাত্রী এবং সেই সাথে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়াও আদায় করছে তারা।
উপজেলার শেরপুর রোড থেকে আউশকান্দি পর্যন্ত যেখানে সিএনজির ভাড়া ছিল ২০ টাকা সেখানে এখন যাত্রীদের নিকট থেকে ৪০ টাকা ভাড়া আদায় করছে অসাধু বেপরোয়া চালকেরা।থানা পয়েন্ট হতে কাজির বাজারের পূর্বের ভাড়া ছিল ৩০ টাকা হতে বৃদ্ধি করে ৫০ টাকা ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।উপজেলার সব কয়টি স্ট্যান্ডে সিএনজি একই কায়দায় এভাবে করে চলেছেন।
নবীগঞ্জে হতে হবিগঞ্জ পর্যন্ত ৪০ টাকার জায়গায় বর্তমানে ৮০ টাকা আদায় করা হচ্ছে। রোডে যেখানে প্রশাসন থেকে ঘোষণা করা হয়েছে ৩ জন যাত্রী উঠানোর কথা সেখানে চালকরা সুকৌশলে সিএনজির পর্দা টানিয়ে পুলিশ চক্ষু ফাঁকি দিয়ে ড্রাইভিং সিটে আরও দুজন করে উঠাচ্ছেন এবং সেই সাথে অতিরিক্ত ভাড়াও আদায় করছে।এ ব্যাপারে স্থানীয় সচেতন যাত্রীরা বাধা দিলেও তা অমান্য করে উল্টো তাদের হেনেস্তা  করার সহ বিভিন্ন হুমকি দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।
কোন কিছু বললেই তারা “করোনাভাইরাস পরিস্তিতি” কে পূজি করে যাত্রীদেরকে ভাড়া নিয়ে অহেতুক জিম্মি করছে।গত কয়েকদিন যাবৎ শহরে যাতায়াত এমনটাই লক্ষ্য করা গেছে। স্থানীয় প্রশাসনের কড়া নজর করলে বেপরোয়া ড্রাইভার/চালকরা অতিরিক্ত ভাড়ার আদায় করার সুযোগ পাবে না। আর সরকরের পুরো নিয়ম মেনে চলতেও বাধ্য থাকবে। বলে উপজেলাবাসীর ধারণা নতুবা সাধারণ জনগণের দুর্ভোগের সীমা থাকবে না এবং সেই সাথে যেকোন সময় চালক ও যাত্রীদের মধ্যে বাড়তি ভাড়া নিয়ে বড় ধরণের দুর্ঘটনা ও ঘটতে পারে।
যাত্রী পরিবহনের পরে একবার করে গাড়ি পরিষ্কার পরিছন্নতা করার নিয়ম থাকলেও এ নিয়ম পালন করতে কোন চালককে লক্ষ্য করা যায়নি ফলে বাড়তে পারে করোনা সংক্রমণ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com